আমার সন্তান

আমার সন্তান
অন্নদার ভবানন্দ ভবনে যাত্রা - অন্নদামঙ্গল কাব্য)

অন্নপূর্ণা উত্তরিলা গাঙ্গিনীর তীরে
পার কর বলিয়া ডাকিলা পাটনীরে।।
সেই ঘাটে খেয়া দেয় ঈশ্বরী পাটনী
ত্বরায় আনিল নৌকা বামাস্বর শুনি।।
ঈশ্বরীরে জিজ্ঞাসিল ঈশ্বরী পাটনী
একা দেখি কুলবধূ কে বট আপনি।।
পরিচয় না দিলে করিতে না পরি পার
ভয়করি কি জানি কে দেবে ফেরফার।।
ঈশ্বরীরে পরিচয় কহেন ঈশ্বরী
বুঝহ ঈশ্বরী আমি পরিচয় করি।।
বিশেষণে সবিশেষ কহিবারে পারি
জানহ স্বামীর নাম নাহি ধরে নারী।।
গোত্রের প্রধান পিতা মুখবংশজাত
পরমকুলীন স্বামী বন্দ্যবংশখ্যাত।।
পিতামহ দিলা মোরে অন্নপূর্ণা নাম
অনেকের পতি তেঁই পতি মোর বাম।।
অতি বড় বৃদ্ধ পতি সিদ্ধিতে নিপূণ
কোন গুণ নাহি তাঁর কপালে আগুন।।
কুকথায় পঞ্চমুখ কণ্ঠভরা বিষ
কেবল আমার সঙ্গে দ্বন্দ্ব অহর্নিশ।।
গঙ্গা নামে সতা তার তরঙ্গ এমনি
জীবনস্বরূপা সে স্বামীর শিরোমণি।।
ভূত নাচাইয়া পতি ফেরে ঘরে ঘরে
না মরে পাষাণ বাপ দিলা এমন বরে।।
অভিমানে সমুদ্রেতে ঝাপ দিলা ভাই
যে মোরে আপনা ভাবে তারি ঘরে যাই।।
পাটনী বলিছে আমি বুঝিনু সকল
যেখানে কুলীন জাতি সেখানে কন্দল।।
শীঘ্র আসি নায়ে চড় দিবা কিবা বল
দেবী কন দিব আগে পারে লয়ে চল।।
যার নামে পার করে ভবপারাবার
ভাল ভাগ্য পাটনী তাহারে করে পার।।
বসিলা নায়ের বাড়ে নামাইয়া পদ
কিবা শোভা নদীতে ফুটিল কোকনদ।।
পাটনী বলিছে মাগো বৈস ভাল হয়ে
পায়ে ধরে কি জানি কুমিরে যাবে লয়ে।।
ভবানী কহেন তোর নায়ে ভরা জল
আলতা ধুইবে পদ কোথা থুব বল।।
পাটনি বলিছে মাগো শুন নিবেদন
সেঁউতি উপরে রাখ রাঙা চরণ।।
পাটনীর বাক্যে মাতা হাসিয়া অন্তরে
রাখিলা দুখানি পদ সেঁউতি উপরে।।
সেঁউতিতে পদ দেবী রাখিতে রাখিতে
সেঁউতি হইল সোনা দেখিতে দেখিতে।।
সোনার সেঁউতি দেখি পাটনীর ভয়
এ ত মেয়ে মেয়ে নয় দেবতা নিশ্চয়।।
তীরে উত্তরিল তরী তারা উত্তরিলা
পূর্বমুখে সুখে গজগমনে চলিলা।।
সেঁউতি লইয়া কক্ষে চলিলা পাটনী
পিছে দেখি তারে দেবী ফিরিলা আপনি।।
সভয়ে কহা পাটনী চক্ষে বহে জল
দিয়াছ যে পরিচয় তা বুঝিনু ছল।।
যে দয়া করিল মোর এ ভাগ্য উদয়
সেই দয়া হইতে মোরে দেহ পরিচয়।।
ছাড়াইতে নারি দেবী কহিলা হাসিয়া
কহিয়াছি সত্যকথা বুঝহ ভাবিয়া।।
আমি দেবী অন্নপূর্ণা প্রকাশ কাশীতে
চৈত্র মাসে মোর পূজা শুক্লা অষ্টমীতে।।
কতদিন ছিনু হরি হোড়ের নিবাসে
ছাড়িলাম তার বাড়ি কন্দলের ত্রাসে।।
ভবানন্দ মুকুন্দার নিবাসে রহিব
বর মাগ মনোনীত যাহা চাহ দিব।।
প্রণমিয়া পাটনী কহিছে জোড় হাতে
আমার সন্তান যেন থাকে দুধে ভাতে।।
তথাস্তু বলিয়া দেবী দিলা বরদান
দুধে ভাতে থাকিবেক তোমার সন্তান।।
বর পেয়ে পাটনী ফিরিয়া ঘাটে যায়
পুনর্বার ফিরে চাহে দেখিতে না পায়।।
____________________________________________

No comments:

Post a Comment